শেষ ওভারে আরিফুলের চার ছক্কা ও খুলনার নাটকীয় জয়ের হাইলাইটস ভিডিও

বঙ্গবন্ধু টি-২০ কাপে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে অবিশ্বাস্য এক জয় পেয়েছে জেমকন খুলনা। ম্যাচের শেষ ওভারের আগে খেলার ফল অনেকটা যেন নির্ধারিত ছিল। স্বাভাবিকভাবেই জেতার কথা ছিল প্রতিপক্ষ বরিশালের। কিন্তু শেষ ওভারে সব হিসেব উলট পালট করে দিয়েছেন আরিফুল।

খলনায়ক থেকে শেষ ওভারে দলকে অবিশ্বাস্য ম্যাচ জিতিয়ে নায়ক বনে যান তিনি।এদিন বরিশালের ১৫৩ রানের জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে ৩৬ রানেই ৪ উইকেট হারিয়ে বিব্রতকর অবস্থায় পড়ে খুলনা। আরিফুল হককে নিয়ে জহুরুল ইসলাম অমি বিপর্যয় কাটানোর চেষ্টায় ছিলেন।

প্রাথমিক পরিস্থিতি সামালও দেন তারা। কিন্তু রানরেটের চাপ বেড়ে যাওয়ায় বাড়ে বিপদও। জহুরুল সেই চাপ মেটাতে গিয়ে ৩১ রান করে দেন ইস্তফা। খুলনার আশা তখন প্রায় নিভু নিভু। সাতে নেমে তখনই আশার জোগান দেন তরুণ শামীম পাটোয়ারি। চার-ছয়ে তুলেন ঝড়।

কিন্তু আরেক প্রান্তে আরিফুল মেটাতে পারছিলেন না সে দাবি। বরং ডট বলে তিনি বাড়িয়েছেন চাপ। সুমন খানের শেষ স্পেলে শামীম আউট হন ২৬ রান করে। অথচ খলনায়কের মঞ্চ থেকে আচমকা নায়ক বনে যাবেন আরিফুলই। শেষ ওভারে জিততে ২২ রান প্রয়োজন হলে জোরের উপর করা

মিরাজের প্রথম বলে লং অফের উপর দিয়ে উড়ান আরিফুল। পরের বলেই একই ফল। এবার বল যায় লং অনের উপর দিয়ে। মাঝের বল ডট দিয়ে পরের দুই বল মিড উইকেট দিয়ে উড়িয়ে দেন ডানহাতি আরিফুল। ওই ৪ ছক্কা মারার আগে ২৯ বলে করেছিলেন ২৪ রান।

ম্যাচ শেষে তার নামের পাশে এখন ৩৪ বলে ৪৮। ৪ ছক্কা বাদ দিলে আর কেবল ২ চার মেরেছিলেন তিনি। যারমধ্যে একটা আবার ব্যাটের কানায় লেগে।দলকে অবিশ্বাস্য ম্যাচ জিতিয়ে অনুমেয়ভাবে ম্যাচ সেরার পুরুস্কারটাও জিতে নিয়েছেন আরিফুল হক।

blob:https://www.facebook.com/d3cf0ee4-3e51-4732-b2de-000d2aa14a6d

Author: Admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *