ভিসির ঘুমে ব্যা’ঘাত> কমিয়ে দেয়া হলো মাইকে আ’জানের শব্দ

কমিয়ে দেয়া হলো মাইকে আ’জানের শব্দ-মাইকে আজানের উচ্চ শব্দে ঘুম ভেঙে যায়। আর ঘুম আসে না। মাথাব্যথা হয়। এক বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলরের (ভিসি) এমন অভিযোগের ভিত্তিতে প্রশাসনের অনুরোধে ঘু-রিয়ে দেয়া হয়েছে মসজিদের মাইক।

কমিয়ে দেয়া হয়েছে শব্দ। এ ঘ-টনা ভারতের উত্তরপ্রদেশের। রাজ্যের এলাহাবাদ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি সঙ্গীতা শ্রীবাস্তব আজানের শব্দে ঘুমাতে পারেন না বলে লিখিত অ-ভিযোগ করেন স্থানীয় প্রশাসনের কাছে। নিজের সরকারি প্যাডে জেলা প্রশাসকের কাছে লেখা এক চিঠিতে

তিনি বলেন, বাড়ির কাছের মসজিদ থেকে মাইকে ভোরের আজানের শব্দে তার ঘুম ভেঙে যায়। তারপর অনেক চেষ্টা করেও ঘুম হয় না। মা-থাব্যথা হয়। এর প্রভাব তার কাজে পড়ছে। তিনি আ-দালতের রায় -উদ্ধৃত করে চিঠিতে বলেন, কোনো ধর্মই মাইক ব্যবহার করার কথা

বলে না। তার দাবি ছিল, ‘মাইক ব-ন্ধ করতে হবে’। শুধু আজান নয়, রমজানে সেহরির সময় লোকজনকে মাইকে জাগানো নিয়েও তিনি আপত্তি জানিয়েছিলেন। চিঠিতে এ প্রসঙ্গে তিনি লেখেন, ঈদের আগে রাত ৪টার সময় যে সেহরি হয়, তার আওয়াজেও অন্য

মানুষদের অসুবিধা হয়। তিনি ওই চিঠি লিখেছিলেন মার্চের শুরুতে। সম্প্রতি সামাজিক মাধ্যমে তা প্রকাশিত হওয়ার পরই ব্যাপক বিতর্ক শুরু হয়। ঘটনা হলো, জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মসজিদ কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি মিটিয়ে নেয়ার অনুরোধ জানানো হয়েছিল। দ্য প্রিন্ট জানিয়েছে, মসজিদ

কমিটির পক্ষ থেকে খলিলুর রহমান জানিয়েছেন, তারা দু’টি লাউডস্পিকার অন্য দিকে বসিয়েছেন। মাইকের ভলিউম ৫০ ভাগ কম করে দিয়েছেন। ফলে এখন আর কোনো সমস্যা নেই। তার মতে, প্রশাসনিক কর্মকর্তাদের না বলে ভিসি যদি আগে তাদের জানাতেন, তাহলে অনেক আগেই তারা এই ব্যবস্থা নিতে পারতেন।dailynayadiganta

Author: Admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *