ভারতে করো’নার টিকা নেওয়ার পর মৃ’ত্যু একজনের,৪৪৭ জনের পার্শ্বপ্র’তিক্রিয়া

ভারতে করো’নার টিকা নেওয়ার পর মৃ’ত্যু একজনের,৪৪৭ জনের পার্শ্বপ্র’তিক্রিয়া ভারতে করোনা’ভাইরাসের ভ্যাক’সিন নেয়ার মাত্র দু’দিনের মধ্যেই শারীরিক পার্শ্বপ্র’তিক্রিয়া দেখা দিয়েছে প্রায় সাড়ে চারশ জনের মধ্যে। মা’রা গেছেন একজন। যদিও ওই ব্যক্তির মৃত্যুর সঙ্গে ভ্যাকসিনের কোনো যোগসূত্র নেই বলে দাবি করেছে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ।

গত শনিবার থেকে ভারতে শু’রু হয়েছে বি’শ্বের বৃহত্তম ভ্যাক’সিন প্রদান কর্ম’সূচি। দেশটিতে তিন হাজারের মতো কেন্দ্রে একসঙ্গে করো’না ভ্যাক’সিন প্রয়োগ কর্ম’সূচির উদ্বো’ধন করেন ভারতীয় প্রধান’মন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

প্রথম দফায় ভারতের চি’কিৎসক, নার্স, অ্যাম্বুলে’ন্সচালক, স্বাস্থ্য’কর্মী ও পরিচ্ছন্ন’তাকর্মীরা করো’নার ভ্যাক’সিন পাবেন। এরপর দেয়া হবে পু’লিশ, সামরিক বাহিনী’সহ বিভিন্ন পর্যায়ের করোনা’যোদ্ধাদের। প্রাথমিকভাবে প্রায় তিন কোটি মানুষকে ভ্যা’কসিন দেয়ার লক্ষ্য নিয়েছে দেশটি।

ভ্যাক’সিন দেয়ার শুরু’র মাত্র দু’দিনের মধ্যেই ৪৪৭ জনের শরীরে নানা ধরনের বি’রূপ প্রতি’ক্রিয়া দেখা দিয়েছে বলে প্রাথমিক তথ্যে জানানো হয়েছে। এসব প্রতিক্রিয়ার মধ্যে রয়েছে জ্বর, মাথা’ব্যথা এবং বমিভাব।ভ্যাক’সিন নেয়া একজনের মৃ’ত্যু

করোনাভাই’রাসের ভ্যাক’সিন নেয়ার মাত্র একদিন পরই মা’রা গেছেন উত্তর প্রদেশের একটি সরকারি হাসপা’তালের ক’র্মী। তার বয়স হয়েছিল ৪৬ বছর।

জেলার প্রধান মেডিকেল কর্ম’কর্তা বলেন, ভ্যাক’সিন নেয়ার সঙ্গ ওই ব্যক্তি’র মৃত্যু’র কোনো স’ম্পর্ক নেই। প্রাদেশিক সরকারের তথ্যমতে, হৃদ’পিণ্ড এবং ফুস’ফুসের অসুখে ওই হাসপাতা’লকর্মীর মৃ’ত্যু হয়েছে বলে ময়না’দন্তে উঠে এসেছে।এছাড়া ভ্যাক’সিন নেয়ার পর কলকা’তায় অজ্ঞা’ন হয়ে পড়েন ৩৫ বছর বয়সী এক না’র্স। তার শারীরিক অবস্থা এখন স্থি’তিশীল।

স্বা’স্থ্য মন্ত্রণা’লয়ের জ্যে’ষ্ঠ এক কর্ম’কর্তা বলেন, ওই নার্স কেন অজ্ঞান হয়ে পড়েছিলেন, সেটা খতিয়ে দেখতে একটি মেডি’কেল বোর্ড গঠন করা হয়েছেভ্যাক’সিন নেয়ার পর অসু’স্থ হয়ে পড়ায় নিবিড় পরি’চর্যা কেন্দ্রে (আই’সিইউ) ভর্তি করা হয়েছে দিল্লির অল ইন্ডিয়া ইনস্টি’টিউট অব মেডিকেল সায়েন্সে’সের এক নিরাপত্তা’কর্মীকে।মাত্র ২২ বছর বয়সী ওই কর্মী প্রথম দিনই ভ্যা’কসিন নিয়েছিলেন। এর পরপরই তার শরীরে অ্যা’লার্জির সমস্যা শুরু হয়।

অবশ্য পার্শ্বপ্র’তিক্রিয়া দেখা দেয়া এসব ব্যক্তির মধ্যে কারা অক্সফো’র্ড-অ্যাস্ট্রোজে’নেকার ‘কোভি’শিল্ড’ আর কারা ভারত বায়োটেকের উদ্ভাবিত ‘কোভ্যা’ক্সিন’ নিয়েছিলেন, সেই তথ্য প্রকাশ করা হয়নি।

সূত্র: বিবিসি বাংলা

Author: Admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *